আশুলিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চিকিৎসাধীন শিক্ষার্থীর মৃত্যু

আশুলিয়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্টে চিকিৎসাধীন শিক্ষার্থীর মৃত্যু

সাভার প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৪৮ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৪:৫০ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

জোনায়েদ হোসেন ইমন। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জোনায়েদ হোসেন ইমন। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সাভারের আশুলিয়ায় ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণে অব্যবস্থাপনার কারণে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মৃত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে জোনায়েদ হোসেন ইমনের মৃত্যু হয়। আশুলিয়ার কবিরপুর এলাকার গফুর মিয়া তার বাবা।

এর আগে গত ২৩ ফেব্রুয়ারি নবীনগর-চন্দ্রা মহাসড়কের কবিরপুর এলাকায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে তার শরীরের ৯০ শতাংশ ঝলসে যায়।

এদিকে জোনায়েদের অকাল মৃত্যুতে তার পরিবার, স্কুলের শিক্ষক ও সহপাঠীদের মাঝে শোকের ছায়া নেমে এসেছে। আশুলিয়ার কবিরপুরের অঞ্জনা মডেল হাইস্কুল থেকে এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছিল জোনায়েদ।

নিহতের বাবা গফুর মিয়া অভিযোগ করে বলেন, ফুটওভার ব্রিজটির অধিকাংশ কাজ শেষ হলেও পূর্ব দিকের সিঁড়ির ওপর দিয়ে ৩৩ হাজার ভোল্টের বিদ্যুতের তার টানা ছিল। তবে ফুটওভার ব্রিজের পূর্ব পাশের অংশ ছাউনি না দিয়েই কাজ শেষ করে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান। আর এ ব্রিজ দিয়েই পারাপারের সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয় জোনায়েদ।

তিনি আরো বলেন, শুধু অব্যবস্থাপনার কারণেই বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে জোনায়েদকে প্রাণ দিতে হয়েছে। এ ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন তিনি।

অঞ্জনা মডেল হাইস্কুলের অর্থনীতি ও ইতিহাস বিভাগের শিক্ষক সজিব খান বলেন, ইমন অত্যন্ত মেধাবী ও শান্ত স্বভাবের ছিল। সে স্কুলেও নিয়মিত ছিল। তার এ মৃত্যুর জন্য দায়ীদের অবিলম্বে আইনের আওতায় আনতে হবে।

আশুলিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জাবেদ মাসুদ জানান, এ ঘটনায় নিহত ওই স্কুল শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে ফুটওভার ব্রিজ নির্মাণকারী ঠিকাদার প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর