‘আমি হাত তুললে ওই নারীর বেঁচে থাকার কথা না’

বিনোদন ডেস্ক :: entertainment-desk

প্রকাশিত: ০৯:৩৭ ১০ অক্টোবর ২০১৮   আপডেট: ০৯:৩৭ ১০ অক্টোবর ২০১৮

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

বহুবার প্রেমে পড়েছেন বলিউড ভাইজান সালমান খান। তার জীবনে এসেছে অনেক নারী। তার মধ্যে রূপালি ভুবনের অনেক নায়িকার সঙ্গে চুটিয়ে প্রেম করেছেন সাল্লু ভাই। তবে সালমানের জীবনে আসা প্রেমিকাদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আলোচনা-সমালোচনা হয়েছে ঐশ্বরিয়াকে নিয়ে। তারা দুজনের প্রেম বলিউডে একসময় ‘টক অফ দ্যা শোবিজ’ ছিল।

এদিকে, সালমান-ঐশ্বরিয়াকে যতটাই না ভালোবাসতেন, ততটাই নাকি নির্যাতনও করতেন। পান থেকে চুন কসলেই মারধর করতেন সালমান। তাছাড়া তিনি নাকি অল্পতেই রেগে যেতেন এবং অকাট্য ভাষায় গালিগালাজ করতেন। এমনই অভিযোগ করেছিলেন ঐশ্বরিয়া।

২০০২ সালে ঐশ্বরিয়ার দেয়া সেই সাক্ষাৎকারটি গোটা দুনিয়ায় বিতর্কের ঝড় তোলে। সেই সময় সালমানও কিন্তু গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন। তিনি বলেছিলেন, আমাকে এক সাংবাদিক এই প্রশ্ন আগেও করেছিলেন। তখন আমি সামনে থাকা টেবিলটিকে হাত দিয়ে আঘাত করি। 

মুহূর্তের মধ্যে টেবিলটি ভেঙে যায়। আসলে আমি যদি কারো গায়ে হাত তুলি, তাহলে অবশ্যই তাকে রেগে গিয়ে তুলবো। সমস্ত শক্তি দিয়েই আঘাতটা করবো। আমার মনে হয় না, এতে ওই নারীর বেঁচে থাকার কথা!

তবে সালমান খান ও ঐশ্বরিয়ার এই ঘটনা অনেক আগের। কিন্তু সম্প্রতি বিষয়টি নতুন করে মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে। কারণ, বলিউডে নায়িকারা যৌন হেনস্তার বিরুদ্ধে প্রতিবাদী হয়ে উঠেছেন। হলিউডের অনুসরণে তারা ‘#মিটু’ ক্যাম্পেইনে যোগ দিয়েছেন। 

তনুশ্রী দত্ত, কঙ্গনা রানাউতের মতো তারকারাও শারীরিক হেনস্তা নিয়ে মুখ খুলেছেন। যার ফলে সালমান-ঐশ্বরিয়ার ইস্যুটি আবারো নতুনভাবে জেগে উঠেছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআই