‘আমার বাবা ধনের লাশ আমার বুকে ফিরিয়ে দেন’

‘আমার বাবা ধনের লাশ আমার বুকে ফিরিয়ে দেন’

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১০:১৭ ১০ আগস্ট ২০২০  

ছবিঃ সংগৃহীত

ছবিঃ সংগৃহীত

লেবাননের রাজধানী বৈরুতে ভয়াবহ বিস্ফোরণে নিহত বাংলাদেশি মো. রাশেদের পরিবারে চলছে শোকের মাতম। তার পরিবারের এখন একটাই দাবি মৃতদেহ যেন দ্রুত দেশে আনা হয়।

জানা গেছে, নিহত রাশেদ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লার নন্দলালপুর এলাকার হাফিজুর রহমানের ছেলে। রাশেদরা দুই ভাই, দুই বোন। ভাইদের মধ্যে রাশেদ বড়। তিনি ছয় বছর ধরে লেবাননে একটি হোটেলে চাকরি করতেন। রোববার রাশেদের পরিচয় শনাক্ত করে বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে এ তথ্য নিশ্চিত করা হয়। এ পরিস্থিতিতে কিছুতেই থামছে না রাশেদের মায়ের কান্না।

রাশেদের মা লুৎফুন্নেছা বলেন, এখন আমার তো চাওয়ার কিছু নাই। আমার বাবা ধনের লাশ যেন আমার বুকে ফিরিয়ে দেয়। আমার সন্তানকে যেন আমাদের কবরস্থানে দাফন করতে পারি।

দূতাবাসের হেড অব চ্যান্সেরি ও ফার্স্ট সেক্রেটারি আবদুল্লাহ আল মামুন গণমাধ্যমকে বলেন, বাংলাদেশি শ্রমিক মোহাম্মদ রাশেদ বিস্ফোরণের পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন। তাকে হারুন হাসপাতালে শনিবার মৃত অবস্থায় পাওয়া গেছে।

উল্লেখ্য, বৈরুতে গত মঙ্গলবার ভয়াবহ দুটি বিস্ফোরণ হয়। ওই ঘটনায় বাংলাদেশ নৌবাহিনীর ২১ সদস্যসহ ১০৮ প্রবাসী আহত হন। মারা গেছেন পাঁচজন। আহত বাংলাদেশি প্রবাসীরা সেখানকারর তিনটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচএফ