Alexa আন্তর্জাতিক আদালতে চলছে গাম্বিয়ার মামলার রায় ঘোষণা

আন্তর্জাতিক আদালতে চলছে গাম্বিয়ার মামলার রায় ঘোষণা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:৪৯ ২৩ জানুয়ারি ২০২০   আপডেট: ১৫:৫৬ ২৩ জানুয়ারি ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে (আইসিজে) রোহিঙ্গাদের গণহত্যার অভিযোগে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গাম্বিয়ার করা মামলার রায় ঘোষণার কার্যক্রম শুরু হয়েছে। মামলার অন্তর্বর্তী ব্যবস্থার নির্দেশনার রায় পড়ে শোনাচ্ছেন আইসিজে প্রেসিডেন্ট আব্দুল কাউয়ি আহম্মেদ ইউসুফ।

বৃহস্পতিবার স্থানীয় সময় ১১টায় মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যা মামলায় জরুরি ব্যবস্থা গ্রহণের আবেদনের বিষয়ে আইসিজের রায় ঘোষণা শুরু হয়।

এর আগে গত বছরের ১১ নভেম্বর মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর সংস্থা ওআইসি’র প্রতিনিধি হিসেবে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে মামলা করে গাম্বিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ও বিচারমন্ত্রী আবু বকর তামবাদু। এরপর গত ১০ থেকে ১২ ডিসেম্বর নেদারল্যান্ডসের দ্য হেগে অবস্থিত আইসিজেতে এই মামলার শুনানি হয়। 

তিন দিনের শুনানির প্রথম দিনেই রোহিঙ্গাদের পক্ষে নিজেদের যুক্তি উপস্থাপন করে গাম্বিয়া। দ্বিতীয়দিনে মিয়ানমারের পক্ষে দেশটির ডি ফ্যাক্টো নেত্রী অং সান সু চি। শুনানির তৃতীয় ও শেষ দিনে রোহিঙ্গা গণহত্যার বিষয়ে একে একে নিজেদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করে গাম্বিয়া ও মিয়ানমার।

গাম্বিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল ও বিচারমন্ত্রী আবু বকর তামবাদু ওই সময় এক বিবৃতিতে বলেন, রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে মিয়ানমারের চালানো গণহত্যার বিচার ও জবাবদিহি চাইতে এবং গণহত্যার বিরুদ্ধে বৈশ্বিক আচরণ যা সব রাষ্ট্রের জন্য বাধ্যতামূলক তাকে সমর্থন ও জোরদার করতেই গাম্বিয়া মামলার পদক্ষেপ নিয়েছে। 

তবে মিয়ানমারের পক্ষে সাফাই গাওয়া অং সান সু চি গণহত্যার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর গণহত্যা চালানোর অভিযোগে করা মামলাটি অসম্পূর্ণ ও বিভ্রান্তিকর। তিনি দাবি করেন, এ বিষয়ে মামলা পরিচালনার এখতিয়ার জাতিসংঘের আদালতের নেই। 

শেষ দিনের শুনানিতে মিয়ানমারে গণহত্যা বন্ধে ছয়টি অন্তর্বর্তী ব্যবস্থার নির্দেশনা চেয়ে আদালতের কাছে অনুরোধ জানায় গাম্বিয়া। অপরদিকে গণহত্যার অভিযোগ খারিজ করতে বিচারকের প্রতি আহ্বান জানান অং সান সু চি। 

শুনানি শেষে এক বিজ্ঞপ্তিতে আইসিজের প্রেসিডেন্ট আব্দুল কাউয়ি আহম্মেদ ইউসুফ জানান, একটি বৈঠকের মাধ্যমে অন্তর্বর্তীকালীন পদক্ষেপের নির্দেশনার আবেদনের বিষয়ে আইসিজে তাদের সিদ্ধান্ত জানাবেন।

এর আগে চলতি সপ্তাহের সোমবার গাম্বিয়ার আইন মন্ত্রণালয় এক টুইটারে পোস্টে জানায়, মিয়ানমারের বিরুদ্ধে গণহত্যার অভিযোগে গাম্বিয়ার করা মামলায় অন্তর্বর্তীকালীন আদেশ ২৩ জানুয়ারি ঘোষণা করবে আইসিজে।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালে মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে দেশটির সেনাবাহিনী গণহত্যা চালায়। নৃশংসতা থেকে বাঁচতে প্রতিবেশী দেশ বাংলাদেশে পালিয়ে যায় কয়েক লাখ রোহিঙ্গা। এরপর সেখানেই আশ্রয় নেয় তারা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএমএফ