আজ পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর

আজ পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ২৩:০৪ ৪ জুন ২০১৯   আপডেট: ০৭:২৪ ৫ জুন ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পার্শ্ববর্তীদেশ ভারত ও পাকিস্তানে পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যাওয়ায় আজ বুধবার দেশে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হবে। ধর্মীয় বিধান ও প্রাকৃতিক নিয়ম অনুয়ায়ী সূর্যোদয় ও সূর্যাস্তের ব্যবধান এক দিনের না হলে একই দিনে আশপাশের দেশগুলোতে চন্দ্র মাস গণনা করা হয়। সে অনুয়ায়ী পার্শ্ববর্তী দেশ দুটির সঙ্গে বাংলাদেশের সময়ের ব্যবধান কোনোভাবেই একদিনের নয়। তাই বুধবার বাংলাদেশেও পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হবে।

মঙ্গলবার রাত ১১টায় চাঁদ দেখা কমিটির জরুরি বৈঠক শেষে ধর্ম প্রতিমন্ত্রী শেখ মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ বুধবার পবিত্র ঈদ উল ফিতর উদযাপনের ঘোষণা দেন।  তবে তিনি জানান, সীমান্ত বেশ কয়েকটি জেলার আকাশে চাঁদ দেখা গেছে বলে আলেম-ওলামায়েকেরাম নিশ্চিত তথ্য দেয়ায় একই ধারায় দেশে ঈদ উদযাপিত হবে। 

প্রতিমন্ত্রী জানান, কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটে পরিচ্ছন্ন আকাশে শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যাওয়ায় কাল বুধবার সারাদেশে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপিত হবে।

তিনি বলেন, এর আগে দেশের আকাশে চাঁদ দেখা যায়নি বলে যে ঘোষণা দেয়া হয়েছিল তাতে সংশোধনী এনে উল্লখিত জেলা প্রশাসকরা চাঁদ দেখা তথ্য নিশ্চিত করলে রাতে জরুরি বৈঠক ডেকে নতুন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তিনি জানান, কুঁড়িগ্রামের ভুরাঙ্গামারি ও লালমনিরহাটের পাটগ্রাম উপজেলার  প্রত্যন্ত অঞ্চলের বাংলাদেশের আকাশ সীমায় পবিত্র শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা গেছে।  

এদিকে আন্তর্জাতিক চাঁদ দেখা কমিটি ‌মাজলিসু রুইয়াতিল হিলাল' দেশে ৬৪ জেলা ও সীমান্তবর্তী এলাকার প্রতিনিধিরা অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে চাঁদ তালাশ করে রাতে কেন্দ্রীয় কমিটিতে সরবরাহ করে। এতে চাঁদের বয়স দেখানো হয়েছে ২৪ ঘণ্টা ৫৭ মিনিট। যা মধ্যরেখা থেকে গণনা করা হয়েছে। দিগন্ত রেখার উপর চাঁদের উচ্চতা প্রায়  ১১ ডিগ্রি এবং কৌণিক দূরুত্ব প্রায় ১৪ ডিগ্রি। চন্দ্রাস্ত ও সূর্যাস্তে সময়ের পার্থক্য কোনোভাবেই ঘণ্টার অধিক নয়। যা ৫৯ মিনিট পর্যন্ত দেখা গেছে। সে অনুযায়ী মঙ্গলবার সূর্যাস্তের পর রমজান মাসের দিন শেষ হয়েছে।

এর আগে সন্ধ্যায় বায়তুল মোকাররমে ইসলামিক ফাউন্ডেশনে চাঁদ দেখা কমিটির সভা শেষে জানানো হয়, দেশের কোথাও ১৪৪০ হিজরি শাওয়াল মাসের চাঁদ দেখা যায়নি। ফলে তখন বৃহস্পতিবার পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর উদযাপনের ঘোষণা দেয়া হয়।

ওই সভায় উপস্থিত ছিলেন- ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সচিব, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা, বাংলাদেশ টেলিভিশনের পরিচালক, বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের পরিচালক ও বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম।

আরো পড়ুন>>> ভারত-পাকিস্তানে ঈদ কাল

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে