আক্কেলপুরে ক্লাসের নামে চলছে কোচিং বাণিজ্য

আক্কেলপুরে ক্লাসের নামে চলছে কোচিং বাণিজ্য

জয়পুরহাট প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:৪৯ ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০  

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি : ডেইলি বাংলাদেশ

জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে সরকারি নিয়ম না মেনেই অতিরিক্ত ক্লাসের নামে উপজেলার সোনামুখি ইউপির গনিপুর জাফরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে চলছে রমরমা কোচিং বাণিজ্য। 

যেখানে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সুনির্দিষ্ট নিষেধাজ্ঞা থাকলেও তা মানা হচ্ছে না। এতে শিক্ষার পরিবেশ ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশংকা করছেন সংশ্লিষ্টরা। 

এলাকাবাসীর অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে দেখা যায়, উপজেলার সোনামুখি ইউপির গনিপুর জাফরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে ৪টায় স্কুল ছুটি হওয়ার পর থেকে ৫টা পর্যন্ত স্কুল কক্ষেই শিক্ষার্থীদের নিয়ে চলছে অতিরিক্ত ক্লাসের নামে চলে কোচিং। 

শিক্ষকদের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলেন, আমরা কোনো কোচিং করাচ্ছিনা। অতিরিক্ত ক্লাস নিচ্ছি। এক পর্যায়ে শিক্ষক সোহাগ উপর ক্ষিপ্ত হয়ে ঔদ্ধত্যপূর্ণ আচরণ করেন এবং দেখে নেয়ার হুমকি দিয়ে বলেন, কত সাংবাদিক দেখলাম, আপনারা যা পারেন করেন। 

এদিকে পৌর সদরের বিভিন্ন এলাকায় দরজা বন্ধ করে গোপনে কোচিং করানোর অভিযোগ উঠেছে। তাদের মধ্যে বিহারপুর এলাকার আক্কেলপুর সরকারি মুজিবর রহমান কলেজের শিক্ষক স্বপন কুমার, প্রাণী সম্পদ মোড়ে মলয় কুমার, সানশাইন একাডেমি, ফেয়ার আদর্শ একাডেমিসহ পৌর সদরের আনাচে কানাচে অবাধে চলছে রমরমা কোচিং বাণিজ্য। এসব কোচিং থেকে অবৈধ নোট গাইড পড়ানো এবং শিক্ষার্থীদের উৎসাহিত করার বিষয়েও একাধিক অভিযোগ রয়েছে। 

এ বিষয়ে গনিপুর জাফরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুল হক ইমাম সুস্পষ্ট কোনো্ বক্তব্য দিতে রাজি হননি। 

উপজেলা একাডেমিক সুপার ভাইজার মীর মোহাম্মদ আলী বলেন, এটি নিঃসন্দেহে অন্যায়। তারা অতিরিক্ত ক্লাসের নামে কোনো প্রকার কোচিং বাণিজ্য চালাতে পারেন না। শিগগির কোচিংগুলোর ব্যাপারে ব্যবস্থা নেয়া হবে। 

এ বিষয়ে আক্কেলপুরের ইউএনও জাকিউল আলম বলেন, গনিপুর জাফরপুর উচ্চ বিদ্যালয়ে কোনো অতিরিক্ত ক্লাস নেয়ার অনুমতি দেয়া হয়নি। তারা নিয়ম না মেনেই এটি করেছে। বিষয়টি উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে জানানো হয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে বলা হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ