আইওএম উপ-মহাপরিচালক পদে বাংলাদেশকে সমর্থনের আহ্বান

আইওএম উপ-মহাপরিচালক পদে বাংলাদেশকে সমর্থনের আহ্বান

ডেস্ক নিউজ ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:৩৭ ১২ জুন ২০১৯   আপডেট: ১৪:৪০ ১২ জুন ২০১৯

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

জাতিসংঘের অভিবাসন সংস্থার (আইওএম) উপ-মহাপরিচালক পদের আসন্ন নির্বাচনে বাংলাদেশের প্রার্থীকে সমর্থনের জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ।

এই পদের জন্য বাংলাদেশের প্রার্থী হিসেবে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হককে মনোনীত করা হয়েছে।

মঙ্গলবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশনের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে এক ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে এ আহ্বান জানানো হয়।

জাতিসংঘের সদস্য দেশসমূহের স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূতদের সম্মানে বাংলাদেশ স্থায়ী মিশন এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। এতে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম ও পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদর্শী নেতৃত্বে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশ একটি দায়িত্বশীল রাষ্ট্র হিসেবে ভূমিকা রাখছে উল্লেখ করে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম বলেন, আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের প্রতিশ্রুতিশীল ভূমিকার ধারাবাহিকতায় আইওএম এর উপ-মহাপরিচালক পদে বাংলাদেশ তার প্রার্থী হিসেবে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হককে মনোনয়ন দেয়া হয়েছে।

বাংলাদেশের প্রার্থীকে সমর্থন করার জন্য সদস্য দেশসমূহের প্রতিনিধিদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব শহীদুল হক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অভিবাসন বিষয়ক বিশেষ দূত এবং আইওএম-এ দীর্ঘ ১২ বছর কাজ করার অভিজ্ঞতা সম্পন্ন একজন পেশাদার কূটনীতিক। তিনি আইওএম এর উপ-মহাপরিচালক হিসেবে কাজ করার সুযোগ পেলে বৈশ্বিক অভিবাসনের উন্নত ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে আইওএমকে আরো কার্যকর প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে তার অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে পারবেন।

বুধবার এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অনুষ্ঠানটি ভারত, শ্রীলংকা, জাপান, রাশিয়া, চীন, সৌদি আরব, কাতারসহ শতাধিক দেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ও বিভিন্ন পর্যায়ের কূটনীতিকদের মিলনমেলায় পরিণত হয়।

বিশাল এই সমাগমে আইওএম এর উপ-মহাপরিচালক পদে আসন্ন নির্বাচনে বাংলাদেশের প্রার্থী হিসেবে পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক-এর প্রার্থিতার বিষয়টি ছিল আলোচনার কেন্দ্রবিন্দু।

বাংলাদেশের প্রার্থীকে সমর্থনের আহ্বান জানিয়ে উপস্থিত কূটনীতিকদের উদ্দেশে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন। বাংলাদেশের যুগান্তকারী উন্নয়ন অগ্রযাত্রার বিভিন্ন দিক বিদেশি অতিথিদের সামনে তুলে ধরেন তিনি। পাশাপাশি রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধানে সদস্য দেশগুলোকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান তিনি।

বাংলাদেশের পররাষ্ট্র সচিব মো. শহীদুল হক কূটনীতিকদের সামনে বৈশ্বিক অভিবাসনের সাম্প্রতিক চালচিত্র (মাইগ্রেশন অর্ডার ৩.০) তুলে ধরেন। তিনি নিরাপদ, নিয়মতান্ত্রিক ও নিয়মিত অভিবাসন প্রতিষ্ঠায় একটি কার্যকর ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার বিষয়ে আলোকপাত করেন এবং অভিবাসনের বিভিন্ন সমস্যার কথা তুলে ধরেন।

আইওএম ও অভিবাসন নিয়ে কাজ করার সুদীর্ঘ অভিজ্ঞতা বৈশ্বিক কল্যাণে ব্যবহার করতে চান বলেও উল্লেখ করেন পররাষ্ট্র সচিব।

বাংলাদেশের অভূতপূর্ব আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরে দেশের অর্জিত অভিজ্ঞতার আলোকে ইকোসকের সদস্যপদে বাংলাদেশের প্রার্থিতার প্রতি সমর্থনদানের জন্য উপস্থিত কূটনীতিকদের ধন্যবাদ জানান পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী। আগামী ১৪ জুন জাতিসংঘ অর্থনৈতিক ও সামাজিক পরিষদের (ইকোসক) এই নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

গত ডিসেম্বরে বাংলাদেশ এবং স্পেনকে আন্তর্জাতিক অভিবাসন রিভিউ ফোরামের মোডালিটিস নির্ধারণে কো-ফ্যাসিলেটেটর নিয়োগ দেয়া হয়। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ও স্পেন জাতিসংঘে এই রেজুলেশনের জিরো ড্রাফটের ওপর প্রথম অনানুষ্ঠানিক আলোচনা পরিচালনা করে। যেখানে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি মাসুদ বিন মোমেন ও স্পেনের স্থায়ী প্রতিনিধি কো-ফ্যাসিলেটরের দায়িত্ব পালন করেন।

অনুষ্ঠানে আগত বিদেশি কূটনীতিকদের বাংলাদেশি খাবারে আপ্যায়ন করা হয় এবং ঈদ উপহার হিসেবে বাংলাদেশের চাসহ বিভিন্ন হস্তশিল্প সামগ্রী দেয়া হয়।

জাতিসংঘ সদর দফতরে কর্মরত বাংলাদেশের সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তারাও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে