অস্বাভাবিক গতির অটোতে মিলল নকল ওষুধ

অস্বাভাবিক গতির অটোতে মিলল নকল ওষুধ

শরীয়তপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:২২ ৬ এপ্রিল ২০২০  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

পুলিশের সন্দেহই অবশেষে সঠিক হলো। অস্বাভাবিক গতির একটি অটোরিকশায় তল্লাশি চালিয়ে উদ্ধার করা হলো বিপুল পরিমাণ নকল ওষুধ। সোমবার সকালে এ ঘটনা ঘটে শরীয়তপুরে।

ডিবি পুলিশের ওসি কবিরুল ইসলামের নেতৃত্বে পুলিশের একটি টিম জেলা শহরের চৌরঙ্গী এলাকায় থেকে নকল ওষুধসহ বিক্রেতাকে আটক করে।

ডিবি পুলিশ জানায়, সকালে চৌরঙ্গী এলাকায় একটি অটোরিকশা অস্বাভাবিক গতিতে যেতে দেখে গতি রোধ করা হয়। পরে তল্লাশি করে অটোরিকশার ভেতর থেকে স্কায়ার ফর্মাসিটিক্যাল, বেক্সিমকোসহ বিভিন্ন নামিদামি কোম্পানির নকল ওষুধ পাওয়া যায়। পরে স্কায়ার ফার্মাসিটিক্যালসহ অন্যান্য ওষুধ কোম্পানির প্রতিনিধিদের আটককৃত ওষুধ দেখালে তারা আসল ওষুধের সঙ্গে তুলনা করে আটককৃত ওষুধ নকল বলে প্রমাণ করে।

নকল ওষুধসহ আটক সোহাগ হাওলাদার সদর উপজেলার দাদপুর পশ্চিম ভাষানচর গ্রামের এমারত হাওলাদারের ছেলে।

সোহাগ জানান, সে দাদপুর নতুন বাজারের মা মেডিসিনের মালিক লিটন মাদবর এই নকল ওষুধ দিয়ে তাকে নিয়মিত বাজারে পাঠান। লিটনের নির্দেশণা অনুযায়ী সে ওষুধ বিক্রি করে।

স্কয়ার ফার্মাসিটিক্যালের ট্যারিটরি ম্যানেজার মাহাফুজ আলম বলেন, আটককৃত নকল ওষুধের মধ্যে আমার কোম্পানি উৎপাদিত কেলবো-ডি নামে একটি ওষুধ দেখি। পরে পাশের ফার্মেসি থেকে কেলবো-ডি’র একটা আসল কৌটা এনে আটককৃত ওষুধের সঙ্গে ব্যাপক অমিল দেখি। তাছাড়া কোনো ওষুধ কোম্পানি তাদের প্রতিনিধি ছাড়া কোনো ওষুধ সরবরাহ করে না। এই ধরনের একটা চক্র নকল ওষুধ সরবরাহ করে বাজারে বিভ্রান্তি সৃষ্টি করে।

ডিবি পুলিশের ওসি মো. কবিরুল ইসলাম বলেন, করোনা নিয়ন্ত্রণে এবং জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে শহরের চৌরঙ্গী এলাকায় কাজ করছি। এরমধ্যে একটা অটোরিকশা অস্বাভাবিক গতিতে আসতে দেখে গতিরোধ করি। পরে অটোরিকশার চালক জানায় দাদপুর নতুন বাজারের মা মেডিসিন দোকান থেকে সে এই ওষুধ এনেছে। অটোরিকশায় থাকা সব ওষুধই নকল বলে প্রমাণিত হয়েছে। এই বিষয়ে চালককে আটক করা হয়েছে। মামলা করা হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ