অবশেষে ১০৩ বছরের বৃদ্ধার ইচ্ছা পূরণ

অবশেষে ১০৩ বছরের বৃদ্ধার ইচ্ছা পূরণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৬:০২ ১২ আগস্ট ২০২০   আপডেট: ১৬:০৩ ১২ আগস্ট ২০২০

১০৩ বছরের ডরোথি পোলক হাতে ট্যাটু আঁকাচ্ছেন।

১০৩ বছরের ডরোথি পোলক হাতে ট্যাটু আঁকাচ্ছেন।

জীবনের শত ইচ্ছা অপূর্ণ রয়ে যায়। কখন সেটি হয় বড় কিংবা ছোট। তবে কয়েক দশকের কাঙ্ক্ষিত ইচ্ছা অবশেষে পূরণ করেছেন ১০৩ বছরের মার্কিন এক বৃদ্ধা। প্রিয় ইচ্ছাটি পূরণ হওয়ার পর তার উচ্ছ্বসিত মুহূর্তের চিত্র ধারণ করা হয়, যা ফেসবুকে পোস্ট হতেই ভাইরাল হয়েছে।

সংবাদ মাধ্যমের খবর, গত জুনেই ছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মিশিগানের বাসিন্দা ডরোথি পোলকের ১০৩ তম জন্মদিন। কিন্তু করোনা আক্রান্ত থাকায় তাকে মিশিগানের মাস্কেগনের একটি নার্সিংহোমে জন্মদিন কাটাতে হয়। তাই সবার সঙ্গে জন্মদিন পালন বা সময় কাটাতে পারেননি তিনি। 

সেবিকারা জানান, দীর্ঘদিন ধরে সবার থেকে বিচ্ছিন্ন থাকায় মানসিক অবসাদে ভুগছিলেন তিনি।

অবশেষে করোনাভাইরাস জয় করে বাড়ি ফেরেন বৃদ্ধা ডরোথি। সম্প্রতি কয়েক দশক ধরে পোষে রাখা অপূর্ণ শখ পূরণের ইচ্ছা হয় তার। সেই ইচ্ছা হচ্ছে, তার হাতে একটি স্থায়ী ট্যাটু আঁকাবেন। কিন্তু এতোদিন তা পূরণ করার সুযোগ হয়নি। এবার মহামারির মাঝেই তার ইচ্ছা পূরণ করতেই হবে বলে ঠিক করেন।

ডরোথির নাতনি টেরেসা সংবাদ মাধ্যমকে জানান, সম্প্রতি দাদির চরম মন খারাপের অবস্থায় আগে কখনো দেখেননি তিনি। করোনা জয়ের পর বাড়ি ফেরার পর স্বাভাবিক জীবন চালাতে পারছিলেন না দাদি। তাই দাদির দীর্ঘদিনের ইচ্ছা পূরণের উদ্যোগ নেয়া হয়। তাকে এক ট্যাটু স্টুডিওতে নেয়ার পর ইচ্ছা অনুযায়ী হাতে একটি সবুজ রঙের ব্যাঙ আঁকানো হয়।

আঁকা ট্যাটু নিয়ে বৃদ্ধা ডরোথির উচ্ছ্বসিত ছবি ফেসবুকে পোস্ট করেন নাতনি টেরেসা। সেখানে তাকে বেশ হাসিখুশি দেখা যায়। সেই ছবি মুহূর্তেই ভাইরাল হয়। 

ডরোথি জানান, ব্যাঙ তার খুব পছন্দ। অনেক দিন আগে এক নাতি তাকে ব্যাঙের ট্যাটু এঁকে দিতে চেয়েছিল। তখন সেটা করা সম্ভব হয়নি। অবশেষে সেই দিনের ইচ্ছা পূরণ হয়েছে।

সূত্র- আনন্দাবাজার অনলাইন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ