অন্তঃকোন্দলে জনগণের পাশে নেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিএনপি

অন্তঃকোন্দলে জনগণের পাশে নেই ব্রাহ্মণবাড়িয়া বিএনপি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৫:২৪ ৯ জুলাই ২০২০  

সংগৃহীত

সংগৃহীত

নেতৃত্ব নিয়ে শীর্ষ নেতাদের মধ্যে লড়াই ও নেতাদের মধ্যে সমন্বয়হীনতার কারণে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় বেহাল অবস্থা বিএনপির। নিজেদের মধ্যে কোন্দলের কারণে করোনা দুর্যোগেও জনগণের পাশে দাঁড়াতে পারছেনা দলটি।

হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি জেলা বিএনপির সভাপতি হওয়ার পর থেকে জেঁকে বসেছে দলের এই কোন্দল। দলের সর্বশেষ সম্মেলনে হাফিজুর রহমান মোল্লা কচি সভাপতি ও জহিরুল হক খোকন সাধারণ সম্পাদক হওয়ার পর থেকেই দলের চেইন অব কমান্ড ভেঙে যায়।

এ কমিটির কারণে দল থেকে ছিটকে পড়েন সাবেক সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ এমরানুর রেজা। তার অনুসারীরা কচি-খোকন কমিটি মেনে নিতে পারেনি। ফলে দলের মধ্যে বিভক্তি শুরু হয়।

এই সুযোগে মাথাচাড়া দিয়ে উঠে কেন্দ্রীয় বিএনপির অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক ও সদর উপজেলা বিএনপির সভাপতি প্রকৌশলী খালেদ হোসেন শ্যামল ও জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজের অনুসারীরা। যুবদল আর ছাত্রদলের নেতারা তাদের অনুসারী হিসেবে পরিচিতি পায়।  

শুধু ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা বিএনপি নয়, কোন্দলে জর্জরিত জেলার ৯টি উপজেলার কমিটিও। চার মাস আগে নবীনগর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনিছুর রহমান মঞ্জুকে লাঞ্চিত করেন সাবেক বিএনপি নেতা মাঈন উদ্দিন মঈনু গ্রুপের নেতারা।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির একাধিক নেতাকর্মী জানান, জেলা বিএনপির নেতাকর্মীদের মাঝে কোনো সমন্বয় নেই। একাধিক গ্রুপ থাকলেও প্রকাশে কোন্দলে আসছে না। ভেতরে ভেতরে তিনটি গ্রুপ কাজ করছে। যে কারণে দিনের পর দিন সামাজিক ও রাজনৈতিক কাজে ব্যর্থতার পরিচয় দিচ্ছে বিএনপি।

এ ব্যাপারে জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জহিরুল হক খোকনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, দলে নেতৃত্বের প্রতিযোগিতা আছে, তবে কোন্দল নেই। দলের নেতৃত্বে আসার জন্য দৌড়ঝাঁপ থাকবেই। এটাকে কোন্দল বলা যাবে না।

ডেইলি বাংলাদেশ/এস