অনলাইনে ক্লাস নেয়ার প্রস্তাব জাবি শিক্ষক সমিতির

অনলাইনে ক্লাস নেয়ার প্রস্তাব জাবি শিক্ষক সমিতির

জাবি প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১২:০৮ ৩১ মার্চ ২০২০  

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়

করোনাভাইরাসের কারণে ছুটিতে থাকা শিক্ষার্থীদের একাডেমিক ক্ষতি ‘পুষিয়ে নিতে’ অনলাইনে ক্লাস নেয়ার দাবি জানিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি।

রোববার বিকেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষক লাউঞ্জে শিক্ষক সমিতির কার্যনির্বাহী কমিটির এক জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

জাবি শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক মো. আমজাদ হোসেন স্বাক্ষরিত সভার কার্যবিবরণী থেকে এ তথ্য জানা যায়। এতে বলা হয়, দীর্ঘ বন্ধের ফলে শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের যে অপরিসীম ক্ষতি হচ্ছে তা মোকাবিলায় অনলাইনে (বিভিন্ন মাধ্যম ব্যবহার করে) ক্লাস নেয়ার ব্যাপারে উদ্যোগ গ্রহণের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের কাছে জোর দাবি জানানোর বিষয়ে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

শিক্ষক সমিতির এই সভায় করোনাভাইরাসের কারণে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ক্যাম্পাস সংলগ্ন এলাকার নিম্ন আয়ের কর্মহীন ও অসহায় জনগোষ্ঠীকে সহায়তার জন্য ফান্ড গঠনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা তাদের সহায়তা শিক্ষক সমিতির কাছে জমা দিতে পারবেন।  বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন থেকে গঠিত ‘করোনাভাইরাস পর্যবেক্ষণ ও প্রতিরোধ সেল’ উপ-উপাচার্য অথবা কোষাধ্যক্ষের নেতৃত্বে পুনর্গঠন করে সেলে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতি, অফিসার সমিতি, কর্মচারী সমিতি ও কর্মচারী ইউনিয়ন থেকে প্রতিনিধি অন্তর্ভুক্তির বিষয়টি কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়।

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের এ সময়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রের সক্ষমতা বাড়াতে আর্থিক সহায়তা প্রদান, ক্যাম্পাসের ভবনগুলোর আবর্জনা সংগ্রহকারীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার সামগ্রী প্রদান ও ক্যাম্পাসে বহিরাগত ও তাদের গাড়ি প্রবেশে কড়াকড়ি আরোপের দাবি প্রশাসনের কাছে জানানো হয়। এ ছাড়া বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসাকেন্দ্রের সেবা পেতে সশরীরে না এসে হটলাইনে যোগাযোগের জন্য সংশ্লিষ্টদের প্রতি অনুরোধ করা হয়।

জাবি শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. এএ মামুনের সভাপতিত্বে সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন সহ সভাপতি অধ্যাপক ড. সৈয়দ হাফিজুর রহমান, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মোতাহার হোসেন, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক আমজাদ হোসেন, সদস্য অধ্যাপক ড. মনোয়ার হোসেন, ফখরুল ইসলাম, অধ্যাপক বশির আহমেদ, অধ্যাপক আহমেদ রেজা এবং শিক্ষক সমিতির আমন্ত্রণে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের চিকিৎসা কেন্দ্রের ভারপ্রাপ্ত প্রধান মেডিকেল কর্মকর্তা ডা. শামছুর রহমান।

করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধ ও সংক্রমণ এড়াতে গত ১৮ মার্চ থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সব ধরণের একাডেমিক কার্যক্রম ও ২২ মার্চ থেকে প্রশাসনিক কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ৯ এপ্রিল পর্যন্ত এ ছুটি চলবে।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম