Alexa অকালে ঝরে যাওয়া এই অভিনেত্রীদের মৃত্যু কেন রহস্যে ঘেরা?

অকালে ঝরে যাওয়া এই অভিনেত্রীদের মৃত্যু কেন রহস্যে ঘেরা?

সাতরঙ ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত: ১৪:১২ ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

মানসিকভাবে সবাই কমবেশি দুশ্চিন্তগ্রস্থ থাকেন! তাই বলে নিজের জীবন থেকে মুক্তি চায় ক’জনই বা! সম্পর্কের টানাপোড়েন বা মানসিক অবসাদ। কখনো আবার ইন্ডাস্ট্রির চাপ। সাম্প্রতিককালে এমন নানা কারণেই আত্মঘাতী হয়েছেন বহু উঠতি এবং চেনা বাঙালি অভিনেত্রী। এমনই কয়েকজনের কথা, যাদের অকালে হারিয়েছেন দর্শক তাদের সম্পর্কে জেনে নিন-

পায়েল চক্রবর্তী

হোটেলের ঘরের দরজা ভেঙে পাওয়া গেল টলিউড অভিনেত্রী পায়েল চক্রবর্তীর ঝুলন্ত দেহ। চলতি বছর ৫ সেপ্টেম্বর রাতে ঘটনাটি ঘটেছে শিলিগুড়ির এয়ারভিউ মোড়ের চার্চ রোডের কাছে একটি হোটেলে।

বিতস্তা সাহা

‘বাঞ্ছা এল ফিরে’ এবং ‘বাঘিনী’ নামে দু’টি ছবিতে অভিনয় করেছিলেন বিতস্তা। ধীরে ধীরে টলিউডে পায়ের তলার জমি শক্ত করার চেষ্টা করছিলেন। মাঝবয়সি এক ব্যক্তির প্রেমে পড়ে ঘর ছাড়েন এই উঠতি নায়িকা। মা-বাবার বাড়ি ছেড়ে বেরিয়ে ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়েছিলেন মিনিট দশেক দূরত্বে, এক অভিজাত আবাসনে। তবে এই মৃত্যু নিছকই আত্মহত্যা কিনা তা অবশ্য আজও রহস্য।

প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায়

২০১৬-র ২ এপ্রিল অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়েছিল বাঙালি অভিনেত্রী প্রত্যুষা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। জনপ্রিয় ধারাবাহিক ‘বালিকা বধূ”র অতি পরিচিত মুখ ছিলেন তিনি। তার অভিনীত ‘আনন্দী’ চরিত্রটি দর্শকদের মধ্যে সাড়া ফেলেছিল। কাজের সূত্রে মুম্বাইতেই থাকতেন তিনি। পুলিশ সূত্রে খবর, বাড়ি থেকে বছর চব্বিশের প্রত্যুষার গলায় ফাঁস দেয়া ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার হয়। এরপর তাকে নিয়ে যাওয়া হয় আন্ধেরির কোকিলাবেন হাসপাতালে। সেখানে চিকিত্সকেরা তাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

পূজা আইচ

২০১৬-র ১১ জুলাই মৃত্যু হয়েছিল বাংলা ছবি ও টেলিভিশনের অভিনেত্রী পূজা আইচের। আত্মহত্যা করেছিলেন তিনি। অভিযোগ উঠেছিল তার শ্বশুরবাড়ির বিরুদ্ধে। ফিল্ম কেরিয়ার ছেড়ে দেয়ার জন্য চাপ দিত তারা। এমনকি পূজাকে মারধরও করা হত বলে অভিযোগ পাওয়া যায়।

দিশা গঙ্গোপাধ্যায়

২০১৫-র ৯ এপ্রিল টেলিভিশন সিরিয়ালের এক অভিনেত্রীর অস্বাভাবিক মৃত্যু হয়। পুলিশ জানায়, তার নাম দিশা গঙ্গোপাধ্যায়। সকালে বন্ধ ফ্ল্যাটের দরজা ভেঙে পুলিশ তেইশ বছর বয়স্ক দিশার ঝুলন্ত দেহ উদ্ধার করে। ঘটনাটি ঘটেছিল পর্ণশ্রী থানা এলাকার বনমালী নস্কর রোডে। প্রাথমিক তদন্তে পুলিশ জানতে পেরেছিল, যে বান্ধবী দিশার সঙ্গে ওই ফ্ল্যাটে থাকতেন, দিশার মৃত্যুর খবর পাওয়ার পরে তিনিও ছাদ থেকে ঝাঁপ দিয়েছিলেন। যদিও বেঁচে যান তিনি। তারা সমপ্রেমী ছিলেন বলে অনুমান ছিল তদন্তকারীদের।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএমএস